মার্কিন নির্বাচনে মুসলিম ভীতিকে ব্যবহারের অভিযোগ

2+Erdoanবাড়তে থাকা ‘মুসলিম ভীতি’কে কাজে লাগিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা কাঙ্খিত ফল লাভের চেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়িপ এরদোয়ান।
ওই উদ্দেশ্যে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট মনোনয়ন প্রত্যাশীরা মুসলিমদের ‘আক্রমণের লক্ষ্যবস্তু’ করছেন বলে দাবি করেছেন তিনি। শনিবার যুক্তরাষ্টের রাজধানী ওয়াশিংটনের কাছে একটি মসজিদ উদ্বোধনকালে এরদোয়ান এ মন্তব্য করেন।তুরস্কের অর্থায়নে নির্মিত ওই মসজিদটি যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে সর্ববৃহৎ বলে দাবি করেছেন সংশ্লিষ্টরা। অটোমান স্থাপত্য শৈলীতে নির্মিত মসজিদের ভিতরে বিশাল প্রাঙ্গণ, একটি সম্মেলন কেন্দ্র, পাঠাগার, আবাসন ব্যবস্থা ও তুর্কি ঘরানার গোসলখানা আছে বলে তুর্কি গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে। মসজিদ কমপ্লেক্সে দেওয়া বক্তৃতায় নিজেকে ‘তুরস্ক ও বহির্বিশ্বে মুসলিমদের রক্ষাকর্তা’ দাবি করা এরদোয়ান বলেন, “অনেকেই এখন মুসলমানদের সন্ত্রাসী হিসেবে অভিহিত করছে। যখন দেখি বর্তমান সময়ের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশীরাও এমন মনোভাব পোষণ করেন, তখন খুবই বিস্মিত ও বিব্রত বোধ করি।” যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান দলীয় দুই মনোনয়ন প্রত্যাশীকে ইঙ্গিত করেই এরদোয়ান এমন মন্তব্য করেছেন বলে ধারণা বিশ্লেষকদের। দলটির শীর্ষ মনোনয়নপ্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্প মুসলিমদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ ‘সাময়িক নিষিদ্ধের’ প্রস্তাব করেছেন। দলে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী টেড ক্রুজ ‘মুসলমান অধ্যুষিত’ এলাকায় পুলিশি টহল বাড়ানোর দাবি তুলেছেন। দুই প্রার্থীর বিরুদ্ধেই যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ইসলাম ও মুসলিমদের বিষয়ে ‘ভীতি’ ছড়ানোর অভিযোগ রয়েছে। এখনও বিশ্বজুড়ে মুসলমানদের ‘অনাকাক্সিক্ষতভাবে টুইন টাওয়ার হামলার দায়’ শোধ করতে হচ্ছে বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এরদোয়ান। তিনি বলেন, “দূর্ভাগ্যবশত যুক্তরাষ্ট্র ও অন্যান্য দেশে মুসলমানরা ক্রমবর্ধমান অসহিষ্ণুতা ও বিদ্বেষের মুখোমুখি হচ্ছেন।” বক্তৃতায় এরদোয়ান তুরস্কের দাবিকৃত ‘জঙ্গি’দের হস্তান্তরে অস্বীকৃতি জানানোয় ইউরোপের দেশগুলোর সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, “ব্রাসেলস ও প্যারিসে সাম্প্রতিক সময়ে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে, ভুলে গেলে চলবে না তুরস্কেও সন্ত্রাসের এক ভয়াবহ মাত্রা বিদ্যমান।”
ব্রাসেলস হামলায় জড়িত এক আত্মঘাতী সম্পর্কে বেলজিয়াম সরকারকে আগেই তথ্য দেয়ার দাবিও পুনর্ব্যক্ত করেন এরদোয়ান। বেলজিয়াম সরকার ওই সতর্কতাকে ‘অগ্রাহ্য’ করেছিল বলে দাবি তার, যার খেসারত হিসেবে ৩৫ জনকে জীবন দিতে হয়েছে। ১৯৮৪ সাল থেকে কুর্দি বিদ্রোহীদের সঙ্গে তুর্কি সরকারের লড়াই চলছে, ওই লড়াইয়ে ৪০ হাজারেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন বলে সরকার পক্ষ দাবি করে আসছে। এর বাইরে দেশটিতে আইএসের জঙ্গিরাও বেশ সক্রিয় রয়েছে। গেল বছরের জুন থেকে তুরস্কে আইএসের চালানো চারটি বোমা হামলায় অন্তত দেড়শ মানুষ নিহত হয় বলে রয়টার্সের প্রতিবেদনগুলোতে বলা হয়েছে।

SHARE