রোহিঙ্গাদের জন্য আরও ২ মিলিয়ন পাউন্ড দেবে যুক্তরাজ্য

মিয়ানমারে নিধনযজ্ঞের মুখে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের সহায়তায় আরও দুই মিলিয়ন পাউন্ড অনুদান ঘোষণা করেছে যুক্তরাজ্য সরকার। যুক্তরাজ্যের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী প্রীতি সুশীল প্যাটেল গত বৃহস্পতিবার এই ঘোষণা দেন। লন্ডনের ক্যামডেনে ডিজাজটারস ইমারজেন্সি কমিটির (ডিইসি) কার্যালয়ে বসে কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের নিয়ে কাজ করে যাওয়া চার ব্রিটিশ ত্রাণকর্মীর বক্তব্য শুনে সহায়তার ঘোষণা দেন তিনি। বিশ্বে বড় কোনো সংকট দেখা দিলে পরিস্থিতি মোকাবেলায় জরুরি সহায়তার আবেদন জানায় ডিইসি। এসব সময় দেশটির শীর্ষ ১৩টি দাতব্য সংস্থা অ্যাকশন এইড, এইজ ইন্টারন্যাশনাল, ব্রিটিশ রেড ক্রস, ক্যাফোড, কেয়ার ইন্টারন্যাশনাল, ক্রিশ্চিয়ান এইড, কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড, ইসলামিক রিলিফ ওয়ার্ল্ডওয়াইড, অক্সফাম, প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল ইউকে, সেভ দ্য চিলড্রেন, টিয়ারফান্ড ও ওয়ার্ল্ড ভিশনকে এক জায়গায় এনে অর্থ সংগ্রহ করে তারা। ডিইসি কার্যালয়ে প্রতিমন্ত্রী ত্রাণকর্মীদের কাছে রোহিঙ্গাদের অবস্থা শোনার সময় বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ এমপি রুশনারা আলী, ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট পার্লামেন্টারি কমিটির সদস্য পল স্কালি এবং বাংলাদেশ বিষয়ক অল পার্টি পার্লামেন্টারি গ্রুপের চেয়ারম্যান অ্যানে মেইন উপস্থিত ছিলেন। রাখাইনে ত্রাণকর্মীদের প্রবেশে বিধি-নিষেধ নিয়ে উদ্বেগ জানান তারা। যুক্তরাজ্যের বৈদেশিক উন্নয়ন সংস্থা ডিএফআইডির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বার্মায় সহিংসতা ও ধ্বংসযজ্ঞের মুখে পালানো মানুষের জন্য তহবিল সংগ্রহে ডিইসির আবেদনে সাড়া দিয়ে ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট সেক্রেটারি প্রীতি প্যাটেল আরও দুই মিলিয়ন পাউন্ড অনুদানের ঘোষণা দিয়েছেন। এ নিয়ে ডিইসির আহ্বানে সাড়া দিয়ে রোহিঙ্গাদের জন্য যুক্তরাজ্যের অনুদান দাঁড়াল পাঁচ মিলিয়ন ডলারে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৫ অগাস্ট রাখাইনে সেনা অভিযানে রোহিঙ্গারা ঘর-বাড়ি ছেড়ে পালাতে শুরু করলে শরণার্থী ও তাদের আশ্রয়দাতাদের সহায়তার জন্য ৫৯ লাখ পাউন্ড দেওয়ার অঙ্গীকার করেছিল যুক্তরাজ্য সরকার। এরপর বাংলাদেশ অভিমুখে রোহিঙ্গাদের ঢল নামলে এরইমধ্যে আরও তিন কোটি পাউন্ড অর্থ সহায়তা দেয় তারা।

 

 

SHARE