Home সাহিত্য কবিতা

কবিতা

মুক্তি চাই

=মো. নয়ন আলী= খাঁচায় বন্দী পাখি হাজারো বার বলে আমি মুক্তি চাই। কিন্তু কেউ কী তারে মুক্ত করে? সে চায় উড়তে পৃথিবীটা ঘুরতে পারে না কিছুই করতে কারণ ইচ্ছেগুলো বাধা অন্যের হাতে। আমি যা চাই তা হয়না আমার ইচ্ছে মত খায় না আমি চলি তোমার মত জমা...

সোনার বাংলা

-পলক রায়- ফুল পাখিদের আপন বাড়ি সবুজ-শ্যামল মাঠ নদীমাতৃক এই দেশেতে সুজন মাঝির ঘাট। বিলে- ঝিলের শাপলা শালুক মনটি যে নেয় কেড়ে কি অপরূপ এই দেশেতে উঠছে নজরুল বেড়ে। রবি ঠাকুরের হাতছানি সোনার বাংলায় পড়ছে ন্যায়ের পথে চলতে তরুণ লড়াই শুরু করছে। শেখ মুজিবের সোনার বাংলা দেখায় রঙিন...

আজব বনে

একদিন পথটা ভূলে স্বপ্নের ভিতরে গিয়েছিলাম দূর জঙ্গলে, গিয়ে দেখি গাছপালার মেলা তার ভেতর পশু-পাখির খেলা,আরে, আজব কি কা-বাতাসের টানে সব ল-ভ-, আমি ভয়ে গাছের এক কোণে আল্লাহকে স্মরণ করছি মনে, এক পা,দু পা করে নাড়ি ভাবছি কিভাবে যাবো বাড়ি, ভাগ্যিস, ঘুম ভেঙ্গে...

অবেলায়

=মো.তসলিম উদ্দিন= অবেলায় অবলা নারী ছাড়ি ঘরবাড়ি রৌদ্র দগ্ধ ধরণীতল এলো কোথা হতে ঝরে দেয়া অনর্গল। ভিজিল বন ভিজিল মন ভিজিল শাড়ির আঁচল। শন শন সমিরণ চারিদিকে ঘণ বন করে মাতামাতি ঝরঝর বেগে মাথে নেই ছাতি সিক্ত কেশ সিক্ত বেশ সিক্ত তনু তার আলো আঁধারে রূপের বাহার।

ছেলেবেলা

=রিমি আক্তার ফিরিংগী= সুন্দর ছিল কত সেই ছেলেবেলা গুটি গুটি পায়ে কত করতাম খেলা। ছিল না তো পড়ালেখাটার কোনো চাপ শুধু ছিল ছুটোছুটি আর দৌড় ঝাঁপ। বেড়িয়েছি ছুটে রাস্তার অলিগলি খেলেছি কত ফুটবল, ডাংগুলি। পুকুরে যেতাম মোরা সবে দল বেঁধে সাঁতার জানি না তাই ভাই আমায় নিত কাঁধে। বড়শিতে মাছ ধরার মধুর...

হরিণ যখন বাঘের দিকে চায়

=মাহবুব জন= একজন হরিণ যখন বাঘের দিকে চায় লুপ্তপ্রাণ শিশুমন কেবলামূখী দেয় ছুট জানের ভয়ে কদম ছোটে আলোর বেগে মাঠ পেরিয়ে ঘাট পেরিয়ে শেষ পর্বন্ত এবং শেষ পর্যন্ত নখের থাবায় মানতে হয় যে হার ---।

কি চমৎকার দেখা গেল

=মফিজুর রহমান জামাল= কি চমৎকার দেখা গেল হৈচৈ শুরু হয়ে গেল নির্বাচনটা এসে গেল কি চমৎকার দেখা গেল। দলগুলো সব জেগে উঠলো রাজনীতির মাঠ গরম হলো পত্রিকা গুলো ব্যস্ত হলো কি চমৎকার দেখা গেল। নমিনেশান কারা পাবে হাই কমান্ড ঠিক করার আগে পত্রিকা সব বলতে...

মানুষের থুথু বনাম বিলাসী গদি

|মাহবুব জন| মানুষেরা থুথু দিয়ে যায় পথে পথে থুথুগুলো পড়লে সরাসরি মুখে কবেই ভেসে যেতে স্রোতে মানুষেরা থুথু দিয়ে যায় বাতাসে ওড়ে আর তুমি আরো আরো ক্ষেপে ওঠ সেই গদি ফিরে পেতে একটুও খেয়াল নেই থুথুর ভেতরে কতো বিষাক্ত ছোবল লুকিয়ে থাকে।

জোছনা রাতে

|নাদিম হায়দার তামান| জোছনা রাতে চাঁদ তারাটা চেয়ে থাকে আমার পানে। এসব দেখে ইচ্ছে করে চলে যায় ছুটে বনে। রাতের পাখি হয়ে জেগে থাকে ঐ না রাতের আলো। ঝিঝির ডাকে মন ভরে যাই লাগে অনেক ভালো। রাতের বেলা চাঁদের আলোয় কতোনা ফুল ফোঁটে। ফুলের গন্ধে...

অপরূপা

|রিমি আক্তার ফিরিংগী| অপরূপ রূপ তোর মনমুগ্ধ কর তোর টানে ছুটে আসি প্রতিটা বছর। গাছপালা, লতাপাতা ফুলে তুই ভরা টিলা আর পাহাড়ে চারিদিক ঘেরা। মাঝ দিয়ে বয়ে চলে ছোট এক খাঁড়ি কুলুকুলু স্রোত বয় অপরূপ ভারি। গাছে গাছে পাখিরা সুখে গায় গান তাই শুনে সকলের জুড়ায় প্রাণ। শীতল স্নিগ্ধ বায়ু বহে সারাক্ষণ প্রাণ...